চেক ডিজঅনার মামলা থেকে বাচার উপায় জানতে চাচ্ছেন? চেকের মামলা থেকে বাচার উপায় জানতে পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

অনেকেই চেক ডিজঅনার মামলায় জড়িয়ে পড়েন। কিন্তু, এই মামলা থেকে বাচার উপায় জানা থাকলে মামলায় জড়িয়ে পড়া লাগতো না। তাই, চেক ডিজঅনার মামলা কি এবং কিভাবে এই চেক ডিজঅনার মামলা থেকে বাচা যায় এ বিষয়গুলো নিয়ে আজ আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

চেক ডিজঅনার মামলা কি

যখন “ক” নামে কোনো ব্যক্তি “খ” নামের একজন ব্যক্তিকে টাকা ধার দেয়, তখন ক টাকা ধার দেয়ার বিনিময়ে খ এর থেকে একটি চেক নিয়েছিলো। যেন সময়মতো সে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে নিতে পারে। এরপর, ক যখন সময়মতো ব্যাংকে টাকা উত্তোলন করতে যায়, তখন ব্যাংক থেকে তাকে জানানো হয় যে একাউন্টে টাকা নেই।

এই অবস্থাকে বলা হয় চেক ডিজঅনার। চেক ডিজঅনার হলে ব্যাংক থেকে ক নামক ব্যক্তি লিখিত মেমোসহ থানায় গিয়ে মামলা দায়ের করে। এই মামলাকে চেকের মামলা বা চেক ডিজঅনার মামলা বলে হয়ে থাকে।

চেক ডিজঅনার হওয়ার কারণ

সাধারণত যখন একজন ব্যক্তি অন্য কাউকে টাকা পরিশোধ করার জন্য চেক দেয় এবং উক্ত ব্যক্তি সেই চেকটি নিয়ে চেকে উল্লিখিত তারিখের ৬ মাসের মাঝে গিয়ে টাকা উত্তোলন করার চেষ্টা করে, কিন্তু তখন যদি ব্যাংক একাউন্টে টাকা না থাকে বা পরিমাণ কম থাকে, তখন চেক ডিজঅনার হয়ে থাকে।

আরও পড়ুন - কারো নামে মামলা আছে কিনা এক ক্লিকেই জেনে নিন

চেক ডিজঅনারের পূর্বশর্ত

চেক ডিজঅনার করতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই কিছু শর্ত মানতে হবে। নয়তো, চেক ডিজঅনার মামলা করতে পারবেন না। নিচে পূর্বশর্তগুলো উল্লেখ করে দিয়েছি।

  • চেকে উল্লেখ করা তারিখের ০৬ মাসের মাঝে ডিজঅনার করতে হবে
  • ব্যাংক হিসাবে শুন্য টাকা বা অল্প পরিমাণ টাকা থাকতে হবে
  • ব্যাংকিং সময়ের মাঝে চেক ডিজঅনার করা

চেকের মামলা করার পূর্বশর্ত

চেকের মামলা করার জন্য কিছু পূর্বশর্ত রয়েছে। এগুলো পূরণ না হলে আপনি কারো বিরুদ্ধে চেকের মামলা বা চেক ডিজঅনার মামলা করতে পারবেন না। নিচে চেকের মামলা করার পূর্বশর্তগুলো উল্লেখ করে দিয়েছি।

  • ব্যাংক থেকে চেক ডিজঅনার করে নেয়া
  • চেক ইস্যু করার ০৬ মাসের মাঝে চেক ডিজঅনার করা
  • টাকা পরিশোধ করার জন্য ৩০ দিন সময় দিয়ে লিগ্যাল নোটিশ দেয়া

নোটিশ দেয়ার সময়ের মাঝে টাকা পরিশোধ না করলে পরবর্তী ৩০ দিনের মাঝে মামলা করতে হবে। চেক ডিজঅনার মামলা চালিয়ে গেলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি যদি অপরাধী প্রমাণিত হয়, তবে আপনি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা ফেরত নিতে পারবেন।

চেকের মামলা থেকে বাচার উপায়

অনেকেই প্রতারনা করার জন্য চেকের মামলা করে থাকে। চেকের মামলা থেকে বাচার উপায় হচ্ছে কোনো অভিজ্ঞ অ্যাডভোকেট এর পরামর্শ অনুযায়ী মামলা চালিয়ে যাওয়া। অথবা, স্থানীয়ভাবে যে ব্যক্তি আপনার নামে মামলা করেছে, তার সাথে মীমাংসা করে নেয়া।

যদি কোনো ব্যক্তি প্রতারনা করার জন্য চেক ডিজঅনার মামলা করে থাকে, অপরাধ প্রমাণিত হলে আইনত দণ্ডনীয় হবেন। তাই, কারো বিরুদ্ধে প্রতারনা করার জন্য চেকের মামলা করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

উপসংহার

আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে চেক ডিজঅনার মামলা থেকে বাচার উপায় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়লে চেকের মামলা থেকে বাচার উপায় ২০২৪ সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা পাবেন। আরও এমন তথ্য জানতে প্রতিনিয়ত আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করুন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *