ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন করার পর যদি কোনো কারণে NID সংশোধন আবেদন বাতিল করতে হয়, তাহলে আপনার উপজেলা নির্বাচন অফিস বরাবর একটি লিখিত দরখাস্ত করতে হবে।

এনআইডি কার্ডে তথ্য ভুল থাকলে অনলাইনে আইডি কার্ড সংশোধন করার জন্য আবেদন করতে হয়। সংশোধনের আবেদন করার পর আপনার আবেদনটি অনুমোদিত না হওয়ার পূর্বেই যদি আপনার কাছে মনে হয় যে সংশোধন আবেদনটি বাতিল করতে হবে, তাহলে ছোট্ট একটি কাজ করতে হবে।

কীভাবে এনআইডি সংশোধন আবেদন বাতিল করতে হয় তা নিয়ে বিস্তারিত জানতে পারবেন এই পোস্টে। চলুন, বিস্তারিত পদ্ধতি জেনে নেয়া যাক।

NID সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম

NID সংশোধন আবেদন বাতিল করার জন্য আপনার ভোটার এলাকার উপজেলা নির্বাচন অফিস বরাবর একটি লিখিত আবেদন করতে হবে। আবেদনে আপনার নাম, পিতা-মাতার নাম, ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার, আবেদন বাতিলের কারণ ইত্যাদি তথ্য উল্লেখ করতে হবে। এরপর, আপনার সংশোধন আবেদন বাতিলের আবেদনটি দেখে নির্বাচন অফিস থেকে আবেদনটি বাতিল করতে পারে।

ঠিক এভাবে করেই এনআইডি কার্ডের সংশোধন আবেদন বাতিল করতে পারবেন। ভোটার আইডি কার্ডে ভুল থাকলে ভোটার আইডি কার্ডের সংশোধন ফি প্রদান করার পর আইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন করতে হয়। আবেদন করার পর ৭ দিন থেকে ৪৫ দিন পর্যন্ত সময় লেগে থাকে আইডি কার্ডের ভুল সংশোধিত হতে।

এই সময়ের মাঝে আপনি যে কাজের জন্য জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন করতে চেয়েছিলেন তা হয়ে গেলে, কিংবা আপনার কাছে যদি মনে হয় যে আপনি উক্ত সংশোধনের আবেদনটি বাতিল করবেন, তাহলে উপরিউল্লিখিত নিয়ম অনুসরণ করে সহজেই আবেদন করার মাধ্যমে সংশোধন আবেদনটি বাতিল করতে পারবেন।

NID সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম অনুযায়ী আপনাকে একটি আবেদন লিখতে হবে উপজেলা নির্বাচন কমিশন অফিস বরাবর। কীভাবে একটি আবেদন পত্র লিখতে হবে তার পুর্নাঙ্গ নিয়ম নিচে উল্লেখ করে দিয়েছি।

এনআইডি সংশোধন আবেদন বাতিলের আবেদনের নমুনা

NID সংশোধন আবেদন বাতিল করার জন্য উপজেলা নির্বাচন কমিশন অফিস বরাবর একটি লিখিত দরখাস্ত জমা দিতে হয়। এখানে আপনার নাম, পিতা-মাতার নাম, আইডি কার্ড নাম্বার এবং ভোটার আইডি সংশোধন আবেদন বাতিল করতে চাওয়ার কারণ উল্লেখ করতে হবে। অতঃপর, নির্বাচন অফিসার আপনার আবেদন যাচাই করে সংশোধন আবেদনটি বাতিল করতে পারেন।

কীভাবে দরখাস্ত লিখতে হবে তার একটি নমুনা নিচে উল্লেখ করে দিয়েছি। এটি অনুসরণ করে আবেদন বাতিলের দরখাস্ত লিখতে পারেন।

তারিখ : ০৬/০২/২০২৪
বরাবর,
উপজেলা নির্বাচন অফিসার,
রংপুর সদর, রংপুর – ৫৪০০

বিষয়: NID সংশোধন আবেদন বাতিল করার আবেদন

জনাব,
সবিনয় নিবেদন এই যে আমি মোঃ ফারহান ইসলাম, পিতা: মোঃ মফিজার রহমান, গ্রাম/মহল্লা: মুন্সিপাড়া, ডাকঘর: রংপুর, জেলা: রংপুর, বিগত ০১/০২/২০২৪ তারিখে অনলাইনে আমার ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের জন্য আবেদন করেছিলাম। আমার NID নাম্বার হচ্ছে – ১৪৬৫৩২৮৭৯০ , জন্ম তারিখ: ১৫/০৬/২০০২ খ্রিঃ। আমার আইডি কার্ড সংশোধনের আবেদনটি এখনো অনলাইনে অনুমোদিত হয়নি।

যে কারণে আমি আমার এনআইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করতে চেয়ে অনলাইনে আবেদন করেছিলাম, তা সম্পন্ন হয়ে যাওয়ার কারণে আমি এখন উক্ত সংশোধনের আবেদনটি বাতিল করতে চাচ্ছি।

অতএব, মহোদয়ের নিকট আমার বিনীত আবেদন এই যে NID সংশোধন আবেদনটি বাতিল করে আমাকে বাধিত করবেন।

বিনীত নিবেদক –
নাম: মোঃ ফারহান ইসলাম
NID: ১৪৬৫৩২৮৭৯০
মোবাইল: ০১৮২২০৩৩০৯০

উপরোক্ত নমুনা অনুসরণ করে সহজেই আপনার ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন বাতিল করার জন্য দরখাস্ত করতে পারবেন। এরপর, উক্ত দরখাস্তটি উপজেলা নির্বাচন কমিশনের অফিস বরাবর মেইল করে দিন। তাহলে তারা আপনার আবেদন যাচাই করে পূর্বের সংশোধনের আবেদনটি বাতিল করে দিবেন।

এছাড়াও, আপনি চাইলে নিচে উল্লিখিত ইমেজটি ডাউনলোড করে এটি প্রিন্ট করে সেখানে আপনার আবেদনটি লিখে জমা দিতে পারেন। এছাড়াও, নিচে উক্ত ইমেজটি পিডিএফ আকারে ডাউনলোড করার অপশন যুক্ত করে দেয়া রয়েছে।

NID সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম
NID সংশোধন আবেদন বাতিল করার নিয়ম
NID সংশোধন আবেদন বাতিলের আবেদনের পিডিএফ

FAQ

কতদিনের মধ্যে এনআইডি সংশোধন আবেদন বাতিল করতে হবে?

এনআইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন করার পর আবেদন অনুমোদিত হওয়ার পূর্বে অর্থাৎ ৪৫ দিনেই আগেই আবেদন বাতিলের দরখাস্ত করতে হবে।

NID সংশোধন আবেদন বাতিল করতে কত টাকা লাগে?

এনআইডি সংশোধন আবেদন বাতিল করতে কোনো টাকা লাগে না।

NID সংশোধন আবেদন বাতিল হতে কত দিন লাগে?

NID সংশোধন আবেদন বাতিল হতে ৭ দিন থেকে ১৫ দিন পর্যন্ত লাগতে পারে।

এই পোস্টে আপনাদের সাথে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধনের আবেদন বাতিল করার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এনআইডি সহ বিভিন্ন ই-সার্ভিস সম্পর্কিত তথ্য জানতে আমাদের ওয়েবসাইটটি প্রতিনিয়ত ভিজিট করুন।

এনআইডি কার্ড সংক্রান্ত অন্যান্য তথ্যসমূহ –

আইডি কার্ড বের করতে চাইলেআইডি কার্ড বের করার নিয়ম
ভোটার আইডি ডাউনলোড করতেভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড
স্মার্ট কার্ড চেক করার উপায়স্মার্ট কার্ড চেক
ভোটার আইডি কার্ড চেক করতেভোটার আইডি কার্ড চেক
ফরম নাম্বার দিয়ে এনআইডি বের করুনফরম নাম্বার দিয়ে আইডি কার্ড
ভোটার স্লিপ হারিয়ে গেছেভোটার স্লিপ হারিয়ে গেলে করণীয়
ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে চানভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে কি কি লাগে
ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন ফিভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে কত টাকা লাগে
ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন সময়ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে কত দিন লাগে
নতুন ভোটার হতে চাননতুন ভোটার হওয়ার আবেদন

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 Comments

  1. তারিখ:২৭/০৩/২০২৪

    বরাবর,
    উপজেলা নির্বাচন অফিসার
    সাভার,ঢাকা।

    বিষয়ঃজাতীয় পরিচয় পএ তথ্য সংশোধনের আবেদন বাতিলের জন্য আবেদন।

    জনাব,
    সবিনয় বিনীত নিবেদন এই যে,আমি নিন্ম স্বাক্ষরকারী আমার জাতীয় পরিচয় পএ নং 6901683182 সংশোধন এর জন্য আবেদন করেছিলাম যার ক্রমিক নং NIDCA14657347।কিন্তুু উক্ত আবেদন’টি সঠিক ছিল না।সঠিক ভাবে আবেদনের সুযোগ প্রদানের নিমিক্তে আমার পূর্বের আবেদন’টি বাতিলের জন্য মহোদয়ের নিকট অনুরোধ করা হইল।

    অতএব,
    মহোদয়ের নিকট আকুল আবেদন আমার আবেদন’টি বাতিল করে বাধিত করবেন।

    বিনীত নিবেদক,
    (খাদিজা আক্তার)
    কবিরপুর,আশুলিয়া,সাভার
    মোবাইলঃ০১৯১১৬৬০৪২৬