রকেট একাউন্ট খুলতে চাচ্ছেন? এই পোস্টটি শুরু থেকে শেষ অব্দি পড়লে সহজ পদ্ধতিতে রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন এবং একটি রকেট একাউন্ট তৈরি করে নিতে পারবেন।

বিকাশ, নগদ এর মতো রকেট একটি মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবস্থা। বাংলাদেশে সর্বপ্রথম ডাচ বাংলা ব্যাংক কর্তৃক তৈরি করা মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম হচ্ছে রকেট মোবাইল ব্যাংকিং। কিভাবে ঘরে বসে রকেট একাউন্ট তৈরি করতে হয় এই বিষয়টি নিয়ে আজ আপনাদের সাথে আলোচনা করবো।

আপনার হাতে থাকা মোবাইলটি দিয়ে, হোক সেটি বাটন মোবাইল কিংবা স্মার্টফোন, একটি রকেট একাউন্ট খুলতে পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন। তো চলুন, কথা না বাড়িয়ে পোস্টের মূল বিষয়ে ফিরে আসা যাক।

রকেট একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে

রকেট একাউন্ট খুলতে হলে কিছু তথ্য এবং ডকুমেন্ট লাগে। রকেট অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে কি কি লাগে তার একটি তালিকা নিচে উল্লেখ করে দিয়েছি।

  • সচল মোবাইল নাম্বার
  • জাতীয় পরিচয় পত্র
  • জাতীয় পরিচয়পত্রের মালিক
  • যেকোনো একটি মোবাইল ফোন
  • ইন্টারনেট কানেকশন (না থাকলেও চলবে)

উপরোক্ত এই তালিকায় উল্লিখিত সবকিছু যদি আপনার কাছে থাকে, তবে ঘরে বসেই রকেট একাউন্ট খুলতে পারবেন। আপনি যদি নিজের জন্য একটি রকেট একাউন্ট খুলতে চান, তাহলে অবশ্যই আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র থাকতে হবে।

আপনার যদি জাতীয় পরিচয় পত্র না থাকে, তবে আপনার পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয় পত্র দিয়ে রকেট অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। তবে, যে ব্যক্তির জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যবহার করবেন, তাকে অবশ্যই উপস্থিত থাকতে হবে।

রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম

সহজেই ঘরে বসে রকেট একাউন্ট খোলা যায়। এজন্য এখন কাস্টোমার কেয়ার বা রকেট এজেন্ট এর কাছে যেতে হয় না। ঘরে বসে দুইটি পদ্ধতি অনুসরণ করে রকেট একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। এগুলো হচ্ছে –

  • রকেট একাউন্ট খোলার কোড দিয়ে
  • রকেট মোবাইল অ্যাপ দিয়ে

উপরোক্ত দুইটি পদ্ধতির মাঝে যেকোনো একটি পদ্ধতি অবলম্বন করে সহজেই একটি রকেট মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। নিচে দুইটি পদ্ধতি নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা করেছি। চলুন, জেনে নেয়া যাক।

আরও পড়ুন - সহজেই উপায় একাউন্ট খোলার নিয়ম

রকেট একাউন্ট খোলার কোড দিয়ে একাউন্ট খোলার নিয়ম

রকেট একাউন্ট খোলার কোডটি হচ্ছে *322# । এই কোডটি ডায়াল করে বাটন মোবাইল বা স্মার্টফোন থেকে অনেক সহজেই একটি রকেট একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। নিচে উল্লিখিত ধাপগুলো অনুসরণ করে রকেট একাউন্ট কোড ব্যবহার করে একাউন্ট খুলতে পারবেন।

ধাপ ১ – আপনার মোবাইলের ডায়াল প্যাড ওপেন করুন এবং ডায়াল করুন *322# কোডটি।

ধাপ ২ – এরপর, 1 টাইপ করে সেন্ড করুন।

রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম
রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম

ধাপ ৩ – এখন আপনাকে একটি ৪ডিজিটের পিন কোড সেট করতে বলবে। গোপন একটি ৪ ডিজিটের পিন কোড সেট করবেন এবং এটি কারো সাথে শেয়ার করবেন না। পিন সেট করে সেন্ড করলে আপনার একাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে।

রকেট একাউন্ট তৈরি করার নিয়ম

উপরে উল্লিখিত এই ধাপগুলো অনুসরণ করলে অনেক সহজেই আপনার নাম্বার দিয়ে একটি রকেট একাউন্ট তৈরি করে নিতে পারবেন। এই পদ্ধতিতে একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করার পর আপনাকে রকেট মোবাইল অ্যাপ ইন্সটল করে সেখানে মোবাইল নাম্বার এবং পিন দিয়ে অ্যাপের ভিতর ঢুকতে হবে।

এরপর, KYC সাবমিট করতে হবে। অর্থাৎ, আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র, ছবি সাবমিট করতে হবে। তাহলে আপনার রকেট একাউন্টটি একটিভ হয়ে যাবে। এর আগে রকেট একাউন্ট ব্যবহার করে কোনো লেনদেন করতে পারবেন না।

আরও পড়ুন - সহজে নগদ একাউন্ট খোলার নিয়ম

রকেট মোবাইল অ্যাপ দিয়ে একাউন্ট খোলার নিয়ম

আপনার কাছে যদি একটি স্মার্টফোন থাকে, তবে রকেট মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে সহজেই একটি রকেট একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন। রকেট অ্যাপ দিয়ে একাউন্ট খোলার জন্য নিচে উল্লিখিত ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

রকেট মোবাইল অ্যাপ
  1. মোবাইল অ্যাপ দিয়ে রকেট একাউন্ট খোলার জন্য প্রথমেই গুগল প্লে স্টোর থেকে Rocket Mobile Banking অ্যাপটি ইন্সটল করতে হবে। এরপর, অ্যাপটি ওপেন করতে হবে।
  2. অ্যাপ ওপেন করার পর ভাষা সিলেক্ট করে মোবাইল নাম্বার লিখতে হবে এবং পরবর্তী ধাপে যেতে হবে। এরপর পপআপ আসলে হ্যাঁ লেখার উপর ক্লিক করতে হবে।
  3. অতঃপর, জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার লিখতে হবে এবং পরবর্তী বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  4. এরপর, আপনার মোবাইল নাম্বারটি কোন অপারেটর এর সেটি সিলেক্ট করতে হবে। অপারেটর সিলেক্ট করে পরবর্তী বাটনে ক্লিক করলে আপনার মোবাইল একটি কল আসবে। কল দিয়ে আপনাকে একটি সিকিউরিটি কোড দেয়া হবে।
  5. কল কেটে গেলে সিকিউরিটি কোডটি বসিয়ে নিচের ফাঁকা বক্সে পিন কোড লিখতে হবে। এরপর, যাচাই করুন বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  6. এরপর আপনাকে রকেট একান্টের ভিতর নিয়ে যাবে। এখন আপনাকে KYC ভেরিফিকেশন করতে হবে। এজন্য, রকেট অ্যাপের ভিতর থেকে “নিবন্ধন সম্পন্ন করুন” বাটনে ক্লিক করতে হবে।
  7. অতঃপর, একাউন্টের ধরণ সিলেক্ট করতে হবে। সিলেক্ট করার পর আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের উপরের অংশ এবং নিচের অংশের ছবি তুলে সাবমিট করতে হবে।
  8. তারপর, আপনার সকল তথ্য ঠিক আছে কিনা তা যাচাই করতে হবে। ঠিক থাকলে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে এবং ক্যামেরা ওপেন হলে ক্যামেরার সামনে মুখ নিয়ে সেলফি তুলে সাবমিট করতে হবে।

এই ধাপগুলো অনুসরণ করলে আপনার রকেট একাউন্ট তৈরি করার কাজ সম্পন্ন হয়ে যাবে। আপনার আবেদনটি রিভিউ করে অনুমোদন দিলে আপনি রকেট একাউন্ট ব্যবহার করে লেনদেন করতে পারবেন।

রকেট একাউন্ট খোলার বোনাস

সঠিকভাবে রকেট একাউন্ট খোলা হলে আপনাকে ১৫ টাকা বোনাস দেয়া হবে। যে কেউ নতুন রকেট একাউন্ট তৈরি করলে রকেট থেকে ১৫ টাকা ইনস্ট্যান্ট বোনাস দেয়া হয়ে থাকে। এজন্য অবশ্যই একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করার পর KYC ভেরিফিকেশন করতে হবে।

রকেট একাউন্ট সুবিধা

বাংলাদেশের প্রথম মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম হচ্ছে রকেট মোবাইল ব্যাংকিং। রকেট দিয়ে আপনি বিকাশ, নগদের মতো সব ধরণের সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন। যেমন –

  • সেন্ড মানি
  • ক্যাশ ইন
  • ক্যাশ আউট
  • পে বিল
  • পেমেন্ট

ইত্যাদি আরও অসংখ্য লেনদেন করতে পারবেন রকেট মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার করে। এছাড়াও, রকেট একাউন্টের আরেকটি সুবিধা হচ্ছে, রকেট ক্যাশ আউট চার্জ অনেক কম।

FAQ

রকেট একাউন্ট কোড কি?

রকেট একাউন্ট কোডটি হচ্ছে *৩২২# । এই কোডটি ডায়াল করে রকেট একাউন্ট চেক করতে পারবেন।

রকেট একাউন্ট দেখার নিয়ম কি?

রকেট একাউন্ট দেখার নিয়ম হচ্ছে – মোবাইলের ডায়াল প্যাড থেকে *322# কোডটি ডায়াল করতে হবে। এরপর, 5 লিখে সেন্ড করতে হবে এবং পিন কোড সেন্ড করতে হবে। তাহলে একাউন্টে কত টাকা ব্যালেন্স আছে দেখতে পারবেন।

আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে ঘরে বসেই রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। ২০২৪ সালে যদি আপনি রকেট একাউন্ট খুলতে চান, তবে রকেট একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২৪ পোস্টটি আপনার জন্য অনেক সহায়ক হবে বলে আশা করছি।

আরও এমন মোবাইল ব্যাংকিং বিষয়ক তথ্য জানার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটটি প্রতিনিয়ত ভিজিট করুন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *