বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন? বিকাশ অ্যাকাউন্টের নাম্বার পরিবর্তন করার নিয়ম জানেন না? এই পোস্টে Bkash Account Number Change করার বিস্তারিত পদ্ধতি শেয়ার করবো আপনাদের সাথে।

আপনার যদি একটি বিকাশ একাউন্ট থাকে এবং কোনো কারণবশত আপনি উক্ত বিকাশ একাউন্টের নাম্বারটি পরিবর্তন করে নতুন নাম্বারে বিকাশ একাউন্টটি রিপ্লেস করে নিতে চান, তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্যই। তো চলুন, বিস্তারিত পদ্ধতি জেনে নেয়া যাক।

বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন করার নিয়ম

বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন করার জন্য বিকাশ কাস্টোমার কেয়ার যেতে হবে বা ১৬২৪৭ নাম্বারে কল দিতে হবে। এরপর বিকাশ প্রতিনিধিকে জানাতে হবে যে আপনি বিকাশ একাউন্ট নাম্বার চেঞ্জ করতে চান। তাহলে, তারা আপনার বিকাশ অ্যাকাউন্টের নাম্বার পরিবর্তন করে নতুন নাম্বারে বিকাশ সেট করে দিবে।

অর্থাৎ, আমরা চাইলে দুইটি পদ্ধতি অনুসরণ করেই বিকাশ অ্যাকাউন্টের নাম্বার পরিবর্তন করতে পারি। এক, বিকাশ কাস্টোমার কেয়ারে গিয়ে, দুই, বিকাশ কাস্টোমার কেয়ারে 16247 নাম্বারে কল দিয়ে।

এই দুইটি পদ্ধতি অনুসরণ করে যে কেউ তার বিকাশ একাউন্টের নাম্বার চেঞ্জ করে নিতে পারবেন। চলুন, আরও বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

আরও পড়ুন - সহজেই বিকাশ পিন লক খোলার উপায়

কাস্টোমার কেয়ার গিয়ে বিকাশের নাম্বার পরিবর্তন

কাস্টোমার কেয়ারে গিয়ে সহজেই বিকাশ একাউন্টের নাম্বার পরিবর্তন করে নেয়া যায়। এজন্য, অবশ্যই সঙ্গে বিকাশ একাউন্টের মালিক, তার এনআইডি কার্ডের তথ্য নিয়ে যেতে হবে। এছাড়াও, যদি পূর্বের বিকাশ একাউন্টের নাম্বার থাকে, সেটিও সঙ্গে নিয়ে যেতে হবে।

কাস্টোমার কেয়ার যাওয়ার পর প্রথমেই তাদেরকে জানাতে হবে যে আপনি বিকাশ একাউন্টের পূর্বের নাম্বার পরিবর্তন করে নতুন নাম্বারে বিকাশ করতে চাচ্ছেন। তাহলে তারা আপনার কাছে বিকাশ একাউন্টের মালিকানা যাচাই করার জন্য মালিকের নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, ঠিকানা, এনআইডি কার্ড সবকিছু চাইবে।

বিকাশ প্রতিনিধিকে সকল তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করতে হবে। এরপর, তিনি আপনার নতুন নাম্বারে পূর্বের বিকাশ একাউন্টটি রিপ্লেস করে দিবেন।

এভাবে করে অনেক সহজেই বিকাশ কাস্টোমার কেয়ার থেকে বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন করতে পারবেন।

আরও পড়ুন - বিকাশ একাউন্ট কার নামে আছে

কাস্টোমার কেয়ারে কল দিয়ে বিকাশ নাম্বার পরিবর্তন

Bkash Number Change করার জন্য 16247 নাম্বারে কল দিতে হবে। এরপর, বিকাশ প্রতিনিধি কল রিসিভ করলে তাকে জানাতে হবে যে আপনি বিকাশ একাউন্টের নাম্বার পরিবর্তন করতে চাচ্ছেন। অতঃপর, প্রতিনিধি আপনার কাছে থেকে একাউন্টের সকল তথ্য চাইবে।

যেমন – বিকাশ একাউন্ট কার এনআইডি দিয়ে খোলা, কবে খোলা, পিতার নাম, মাতার নাম, ঠিকানা, জন্ম তারিখ ইত্যাদি। যেকোনো একটি ট্রানজেকশন এর পরিমাণ জানতে চাইতে পারে। এসকল তথ্য তাকে সঠিকভাবে দিতে হবে।

অতঃপর, বিকাশ প্রতিনিধি আপনার নতুন নাম্বারে বিকাশ একাউন্টটি রিপ্লেস করে দিবেন। অতঃপর, আপনি নতুন নাম্বার দিয়ে বিকাশ একাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন। (অবশ্যই বর্তমান বিকাশ একাউন্টের নাম্বার থেকে সাপোর্টে কল দিতে হবে।)

বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন করতে কি কি লাগে

বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন ২০২৪ করতে কিছু কাগজপত্র এবং ডকুমেন্ট লাগে। Bkash Account Number Change করতে কি কি লাগে তার একটি তালিকা নিচে উল্লেখ করে দিয়েছি। চলুন, দেখে নেয়া যাক।

  • বিকাশ একাউন্ট মালিকের এনআইডি কার্ড
  • পূর্বে করা যেকোনো ট্রানজেকশনের পরিমাণ
  • বর্তমান একাউন্ট যে সিমে আছে, সেটি
  • নতুন যে সিমে একাউন্ট করতে চাচ্ছেন, সেটি
  • বিকাশ একাউন্ট মালিককে উপস্থিত থাকতে হবে

উপরোক্ত তথ্যগুলো এবং কাগজপত্র নিয়ে কাস্টোমার কেয়ার গিয়ে বা কল দিয়ে সকল তথ্য দিলে আপনার বিকাশ একাউন্টের বর্তমান নাম্বার পরিবর্তন করে নতুন নাম্বারে একাউন্ট করে দিবে।

আরও পড়ুন - ঘরে বসে বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম

সারমর্ম

পোস্টে উল্লিখিত পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করে সহজেই Bkash Account Number Change 2024 করতে পারবেন। পোস্ট সম্পর্কে যেকোনো মতামত বা প্রশ্ন জানাতে পারেন কমেন্ট বক্সে। আরও তথ্য জানতে ওয়েবসাইটটি ভিজিট করতে পারেন প্রতিনিয়ত।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *