শুধু ভূমি দখলে থাকলেই হবে না, দলিল থাকতে হবে এ মর্মে, গত ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ইং দলিল যার জমি তার গেজেট পাশ হয়েছে জাতীয় সংসদে। আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার বিল–২০২৩ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

দলিল যার জমি তার গেজেট কী?

এতদিন পর্যন্ত আমাদের দেশে একটি আইন প্রচলিত ছিলো, যদি কোন ব্যক্তি ১২ বছরের বেশি সময় যাবত একটি জমি বা বাড়িতে বসবাস করে, দেখভাল করে তবে উক্ত ব্যক্তি সেই জমি বা বাড়ির মালিকানা দাবী করতে পারবে।

অর্থাৎ, মনে করুন আপনি আপনার বাড়ি এবং জমি অন্য কাউকে দেখভাল করতে দিয়েছেন এবং উক্ত ব্যক্তি ১২ বছর বা ১২ বছরের বেশি সময় যাবত আপনার জমি এবং বাড়ির দেখভাল করছেন, তবে চাইলে উক্ত ব্যক্তি আপনার জমি ও বাড়ির দেখভাল করতে পারবেন।

এটি ছিলো আমাদের দেশের পূর্বের একটি আইন যার প্রতিকার চেয়ে দেশের মানুষ অনেক প্রতিবাদ করেছেন। অবশেসে ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ খ্রি: জাতীয় সংসদে ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার বিল-২০২৩ পাশ হয়েছে। ১২ সেপ্টেম্বর এই আইন পাশ হলেও এটি গেজেট আকারে প্রকাশ হয় ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে। আর এই গেজেটটিই হচ্ছে দলিল যার জমি তার গেজেট।

দলিল যার জমি তার গেজেট

শুধু দখলে থাকলেই মালিক দাবী করা যাবে না, সঙ্গে থাকতে হবে জমির দলিল বা জমি দখলের বৈধ দলিল বা আদালতের আদেশনামা। অনেকেই প্রতারণা এবং শক্তিমত্তার জোড়ে অনেক জমি অন্যায়ভাবে দখল করে আসছেন। এই অপরাধ রোধ করতেই ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার বিল-২০২৩ গত ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখে পাশ হয়েছে।

দলিল যার জমি তার গেজেট
দলিল যার জমি তার গেজেট

এখন থেকে এই আইন অনুযায়ী, জমির মালিকানা দাবী করতে হলে অবশ্যই জমির বৈধ দলিল থাকতে হবে বা আদালতের বৈধ আদেশনামা থাকতে হবে। অন্যায়ভাবে জমি দখল করলে ৭ বছরের কারাদণ্ড সহ জরিমানা হতে পারে।

ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইনের অপরাধসমূহ

অবৈধভাবে ভূমি দখল করা, জোরপূর্বক জমি দখল করে মালিকানা দাবী করা, দলিল নকল করা সহ আরও অনেক ভূমি সংক্রান্ত অপরাধ রয়েছে যা প্রায় প্রতিনিয়ত সংঘটিত হতে দেখা যায়। ভূমি অপরাধ প্রতিরোধ ও প্রতিকার আইনে যেসব কাজ অপরাধের শামিল, তা নিচে উল্লেখ করে দেয়া হয়েছে।

  • অন্যের জমি অন্যায়ভাবে দখল করা এবং মালিকানা দাবী করা
  • জমিল দলিল সম্পূর্ণ কিংবা আংশিকভাবে নকল করা
  • প্রতারনা বা শক্তি দ্বারা কাউকে জোর করে দলিল স্বাক্ষর করতে বা সিলমোহর দিতে বাধ্য করা
  • কর্তৃপক্ষের নিকট মিথ্যা তথ্য প্রদান করা

এছাড়াও আরও অনেক অপরাধ রয়েছে তা সংঘটিত হলে ৭ বছরের কারাদণ্ড সহ জরিমানা হতে পারে। বিস্তারিত জানতে নিম্নে উল্লিখিত পিডিএফ ফাইলটি পড়তে পারেন। এখানে সকল তথ্য সংযুক্ত করা রয়েছে।

ভূমি অপরাধের সাথে জড়িত হলে কারাদণ্ড সহ জরিমানা হতে পারে। তাই, এ সম্পর্কিত যেকোনো অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত হওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে।

আজকের এই পোস্টে আপনাদের সাথে দলিল যার জমি তার গেজেট ২০২৩ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। এমন আরও তথ্য জানতে নিচের পোস্টগুলো পড়তে পারেন।

এছাড়াও, আমাদের ওয়েবসাইটে নামজারি খতিয়ান অনুসন্ধান, বি এস খতিয়ান অনুসন্ধান, এস এ খতিয়ান অনুসন্ধান, বি আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করার পদ্ধতি নিয়েও বিস্তারিত তথ্য পাবেন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *