আবেদন পত্র লিখতে চাচ্ছেন কিন্তু আবেদন পত্র লেখার নিয়ম জানেন না? আজকের এই ব্লগে আবেদন পত্র এবং দরখাস্ত লেখার নিয়ম ও নমুনা সম্পর্কে জানতে পারবেন এবং নিজেই ২ মিনিটে সব ধরনের আবেদন পত্র লিখতে পারবেন।

আমাদের কাজের জন্য অনেক সময় বিভিন্ন প্রকার আবেদন পত্র কিংবা দরখাস্ত লিখতে হয়। কিন্তু, পত্র লেখার নিয়ম না জানা থাকলে অন্যের দ্বারস্থ হতে হয়। তবে, আপনি যদি দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানেন, তাহলে একাই সব ধরনের দরখাস্ত লিখতে পারবেন কয়েক মিনিটেই।

চাকরির আবেদন পত্র, ছুটির আবেদন পত্র, স্কুল-কলেজের জন্য আবেদন পত্র লেখার নিয়ম জানতে পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন।

আবেদন পত্র লেখার নিয়ম

আবেদন পত্র কিংবা দরখাস্ত লেখার নিয়ম প্রায় একই। সব ধরনের আবেদন পত্র একই নিয়মেই লিখতে হয়। বিষয়ভেদে আবেদন পত্রের বিষয় পরিবর্তন হয় এবং প্রেরক ও প্রাপকের নাম পরিবর্তন হয়। নিচে আবেদন পত্র লেখার নিয়ম বাংলায় উল্লেখ করে দেয়া হয়েছে।

আবেদন পত্র লেখার বিস্তারিত নিয়ম —

আবেদন পত্র লেখার জন্য প্রথমেই তারিখ লিখতে হবে এবং বরাবর লিখে প্রাপকের নাম/পদবি, প্রতিষ্ঠানের নাম এবং ঠিকানা লিখতে হবে। এরপর, যে বিষয়ের উপর আবেদন পত্রটি লেখা হচ্ছে, সেটি উল্লেখ করতে হবে এক লাইনে। অতঃপর, সম্ভাষণমূলক শব্দ ব্যবহার করতে হবে এবং আবেদনের মূল বিষয় শুরু করতে হবে।

আবেদনের মূল বিষয়ে বাড়তি কথা না লিখে আপনি ঠিক কী কারণে আবেদন পত্রটি লিখছেন সেটি উল্লেখ করতে হবে। আবেদনের ভাব যেন লেখার মাঝে প্রকাশ পায় সেভাবে করে শব্দ চয়ন করতে হবে। অতঃপর, প্রেরক বা আবেদনকারীর নাম লিখে আবেদন পত্র লেখা শেষ করতে হবে।

অতঃপর, আবেদন পত্রটি একটি খামে ভরে সেখানে প্রাপকের ঠিকানা লিখে ডাকযোগে কিংবা সরাসরি প্রাপকের নিকট পত্রটি পৌঁছে দিতে হবে। তবেই, তিনি আমাদের পত্রটি যাচাই করে আবেদনটি অনুমোদন করবেন।

আরও পড়ুন — চিঠির খাম লেখার নিয়ম

আবেদন পত্র লেখার নিয়ম বাংলায়

আবেদন পত্র লেখার বিস্তারিত নিয়ম বাংলায় নিচে একটি তালিকা আকারে উল্লেখ করে দেয়া হয়েছে। এই তালিকায় থাকা বিষয়গুলো যেকোনো আবেদন পত্র লেখার সময় মাথায় রাখতে হবে।

  • প্রথমেই তারিখ লিখতে হবে এবং তারিখের নিচে বরাবর লিখতে হবে।
  • এখন, প্রাপকের নাম/পদবি এবং প্রতিষ্ঠানের নাম লিখতে হবে।
  • প্রাপকের প্রতিষ্ঠানের ঠিকানা লিখতে হবে।
  • অতঃপর, আবেদনের মূল বিষয়টি এক লাইনে লিখতে হবে।
  • সম্ভাষণমূলক শব্দ ব্যবহার করতে হবে (জনাব, মহোদয় ইত্যাদি)।
  • আবেদনের মূল বিষয় লিখতে হবে সোজা কথায়।
  • প্রেরক বা আবেদনকারীর নাম এবং ঠিকানা লিখতে হবে।

যেকোনো ধরনের দরখাস্ত লেখার সময় উপরে উল্লেখ করে দেয়া এই ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবে। তাহলে, প্রফেশনাল মানের একটি আবেদন পত্র বা দরখাস্ত লিখতে পারবেন এবং সেটি অনুমোদন হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।

বাংলায় দরখাস্ত লেখার নিয়ম

বাংলায় দরখাস্ত লেখার জন্য তারিখ, বরাবর, প্রাপকের নাম বা পদবি এবং প্রতিষ্ঠানের নাম ও ঠিকানা লিখতে হবে। এরপর, আবেদনের মূল বিষয় লিখতে হবে এক লাইনে। অতঃপর, জনাব/মহোদয় লিখতে হবে এবং আবেদনের মূল বিষয় লিখতে হবে। অতঃপর, প্রেরক বা আবেদনকারীর নাম ও ঠিকানা লিখতে হবে।

এভাবে করে অনেক সহজেই যেকোনো ধরনের আবেদন পত্র বা দরখাস্ত লিখতে পারবেন। চাকরির আবেদন পত্র, ছুটির আবেদন পত্র কিংবা যেকোনো প্রয়োজনে আবেদন পত্র লিখতে পারবেন সহজেই। তো চলুন, এখন সহজেই বাংলায় আবেদন পত্র বা দরখাস্ত লেখার জন্য বিভিন্ন প্রকার নমুনা দেখে নেয়া যাক।

চাকরির দরখাস্ত লেখার নিয়ম ২০২৪

চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করতে হলে চাকরির দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানতে হবে। চাকরির দরখাস্ত লেখার সময় মার্জিত ভাষায় লিখতে হবে। সহজেই চাকরির আবেদন পত্র লেখার জন্য নিচে উল্লেখ করে দেয়া নমুনাটি অনুসরণ করুন।

০১ মে, ২০২৪
বরাবর
প্রধান ব্যবস্থাপক
স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড
কারওয়ানবাজার, ঢাকা

বিষয়: হিসাবরক্ষক পদে নিয়োগের জন্য আবেদন।

জনাব,
সবিনয় নিবেদন এই যে, গত ২৯ এপ্রিল দৈনিক যুগের আলো পত্রিকায় প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তি মারফত জানতে পারলাম যে, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড কোম্পানিতে হিসাবরক্ষক পদে কয়েকজন লোকবল নিয়োগ প্রদান করা হবে। উক্ত পদের জন্য নিজেকে একজন প্রার্থী বিবেচনায় নিম্নে আমার জীবনবৃত্তান্ত নিকট তুলে ধরলাম।

১। নাম: মো: ফারহান ইসরাক
২। পিতার নাম: মো: মফিজার রহমান
৩। মাতার নাম: মোছা: ফেরদৌসি বেগম
৪। বর্তমান ঠিকানা: গুরাতিপাড়া, কাচারি বাজার, রংপুর সদর, রংপুর
৫। স্থায়ী ঠিকানা: গুরাতিপাড়া, কাচারি বাজার, রংপুর সদর, রংপুর
৬। জাতীয়তা: বাংলাদেশ
৭। ধর্ম: ইসলাম
৮। বৈবাহিক অবস্থা: অবিবাহিত
৯। ইমেইল এড্রেস: hello@farhanisrak.com
১০। মোবাইল নম্বর: 01756845906
১১। শিক্ষাগত যোগ্যতা: 

পরীক্ষার নামগ্রুপ/বিষয়বোর্ড/বিশ্ববিদ্যালয়পাশের সনপ্রাপ্ত গ্রেড
এসএসসিব্যবসায় শিক্ষাদিনাজপুর২০১৪জিপিএ-৫
এইচএসসিব্যবসায় শিক্ষাদিনাজপুর২০১৬জিপিএ-৫
বিএফিনান্সরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়২০২০প্রথম শ্রেণী
এমএফিনান্সরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়২০২১প্রথম শ্রেণী

১২। অভিজ্ঞতা ও দক্ষতা:

  • এসিআই ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেড কোম্পানিতে গত ০২ বছর যাবত হিসাবরক্ষক পদে চাকরির অভিজ্ঞতা। 
  • মাইক্রোসফট এক্সেল এবং পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনে পারদর্শী।

অতএব, মহোদয়ের নিকট আকুল আবেদন এই যে, উপরে উল্লিখিত আমার জীবনবৃত্তান্তগুলো যাচাই করে আমাকে উক্ত পদে একজন যোগ্য প্রার্থী বিবেচনা করে নিয়োগ প্রদান করে বাধিত করবেন।

নিবেদক-
মো: ফারহান ইসরাক
গুরাতিপাড়া, রংপুর

উপরে উল্লেখ করে দেয়া এই নমুনাটি অনুসরণ করে সহজেই চাকরির আবেদন পত্র লিখতে পারবেন।

প্রধান শিক্ষকের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম

স্কুল কিংবা কলেজের প্রধান শিক্ষকের কাছে দরখাস্ত লেখার জন্য নিয়ম জানা আবশ্যক। যেকোনো কারণে ছুটি প্রয়োজন হলে, বিনা বেতনে পড়তে হলে, আর্থিক সমস্যা হলে, উপবৃত্তি চেয়ে, অগ্রিম ছুটি চেয়ে সহ আরও অনেক কারণেই প্রধান শিক্ষকের নিকট দরখাস্ত লিখতে হয়।

কিন্তু, আমরা যখন নিজে থেকে দরখাস্ত লিখতে পারিনা, তখন অন্য কারও থেকে লিখে নিতে হয়। তবে, প্রধান শিক্ষকের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানা থাকলে মাত্র কয়েক মিনিটে আমরা একটি দরখাস্ত লিখতে পারবো। নিচে এমন কিছু আবেদন পত্র লেখার নিয়ম ও নমুনা উল্লেখ করে দেয়া হল।

স্কুল ছুটির জন্য আবেদন পত্র লেখার নিয়ম

স্কুল থেকে ছুটি প্রয়োজন হলে প্রধান শিক্ষকের নিকট একটি দরখাস্ত লিখতে হয়। ছুটির দরখাস্ত লেখার জন্য ছুটির দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানা আবশ্যক। নিচে স্কুল ছুটির জন্য প্রধান শিক্ষকের নিকট দরখাস্ত লেখার নমুনা উল্লেখ করে দেয়া হল।

০১ মে, ২০২৪
বরাবর 
প্রধান শিক্ষক
রংপুর সরকারি কলেজ
রংপুর সদর, রংপুর

বিষয়: অগ্রিম ছুটি চেয়ে আবেদন

জনাব,
সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি আপনার প্রতিষ্ঠানের দ্বাদশ শ্রেণির একজন নিয়মিত ছাত্র। বিগত ১ বছর যাবত আপনার প্রতিষ্ঠান নিয়মিত পড়ালেখা করছি। একাদশ শ্রেণির বার্ষিক পরীক্ষায় প্রথম স্থান অর্জন করে দ্বাদশ শ্রেণিতে উত্তীর্ণ হয়েছে। আগামী ০৩ তারিখ হতে ০৫ তারিখ পর্যন্ত আমার বড় বোনের বিয়ের অনুষ্ঠান আয়োজিত হতে যাচ্ছে। উক্ত অনুষ্ঠানে আমার উপর অনেক কাজের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। একারণে, আমি আগামী ০২ মে থেকে ০৬ মে পর্যন্ত কলেজে উপস্থিত হতে পারবো না।

অতএব, মহোদয়ের নিকট আকুল আবেদন এই যে, আমাকে আগামী ০২ মে হতে ০৬ মে পর্যন্ত অগ্রিম ছুটি প্রদান করে বাধিত করবেন।

নিবেদক-
আপনার একান্ত অনুগত ছাত্র 
মো: ফারহান ইসরাক
শ্রেণি: দ্বাদশ
রোল নং: ০১

আরও পড়ুন — চাকরি থেকে অব্যাহতির জন্য রিজাইন লেটার লেখার নিয়ম

অফিশিয়াল দরখাস্ত লেখার নিয়ম

অফিসিয়াল দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানা থাকলে অফিসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছে যেকোনো প্রয়োজনে আবেদন করে ছুটি নেয়া সম্ভব হয়। ছুটি ছাড়াও বিভিন্ন কারণে আবেদন করতে হয়। আবেদন পত্র লেখার নিয়ম জানা থাকলে সহজেই অফিসিয়াল দরখাস্ত লেখা যাবে।

নিচে আপনাদের জন্য একটি অফিসিয়াল আবেদন পত্র লেখার নিয়ম এবং নমুনা উল্লেখ করে দিলাম। এটি অনুসরণ করে অনেক সহজেই যেকোনো প্রকার অফিসিয়াল আবেদন পত্র বা দরখাস্ত লিখতে পারবেন।

অফিসে ছুটির দরখাস্ত লেখার নিয়ম

অফিস থেকে ছুটি প্রয়োজন হলে একটি ছুটির দরখাস্ত লিখে অফিসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার নিকট জমা দিয়ে সহজেই ছুটি নিতে পারবেন। অফিস থেকে ছুটির দরখাস্ত লেখার নিয়ম এবং নমুনা নিচে উল্লেখ করে দেয়া হল।

অফিস থেকে ছুটির জন্য দরখাস্ত করতে হলে মুখে ছুটি না চেয়ে একটি আবেদন পত্র লিখে তবেই ছুটি চাওয়া উচিত। নয়তো, বসের ঝাড়ি খাওয়া সহ ছুটি না পাওয়ার সম্ভাবনা থাকবে বেশি।

০১ মে, ২০২৪
বরাবর 
মানবসম্পদ ব্যবস্থাপক
স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস কোম্পানি লিমিটেড
ডিসির মোড়, রংপুর সদর, রংপুর

বিষয়: বিশেষ প্রয়োজনে অফিস থেকে ছুটির জন্য আবেদন। 

মহোদয়,
সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি আপনার প্রতিষ্ঠানে বিগত ০৪ বছর যাবত সৎ এবং নিষ্ঠার সহিত আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করে আসছি। বিগত বছরগুলোতে আমি নিয়মিত অফিস এসেছি আমার আমার কাজগুলো সফলতার সাথে সম্পন্ন করেছি। প্রতিষ্ঠানের উন্নতিতে আমি অনেক ভূমিকা রাখতে পেরেছি। আগামী ০২ মে হতে ০৫ মে পর্যন্ত আমার ছোট বোনের বিবাহ অনুষ্ঠান আয়োজিত হতে যাচ্ছে।

অতএব, মহোদয়ের নিকট আকুল আবেদন এই যে, আমার ছোট বোনের বিয়ের অনুষ্ঠানে আমার উপর অর্পিত দায়িত্বগুলো পালন করার জন্য আমাকে ০৪ দিনের ছুটি প্রদান করে বাধিত করবেন।

নিবেদক-
মো: ফারহান ইসরাক
সহকারী বিপণন ব্যবস্থাপক
মোবাইল নং: ০১৭৩৪-০০৪৪৫৬

উপরোক্ত নমুনাটি অনুসরণ করে অনেক সহজেই অফিসে ছুটির জন্য একটি দরখাস্ত লিখতে পারবেন। অফিস থেকে ছুটি প্রয়োজন হলে, সরাসরি না বলে একটি আবেদন পত্র লিখে জমা দিন। এতে করে, আপনার ছুটি মঞ্জুর হওয়ার সম্ভাববা বেশি থাকবে।

চেয়ারম্যানের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম

যারা ইউনিয়ন পরিষদের অধীনে বসবাস করেন, বিভিন্ন প্রয়োজনে তাদের চেয়ারম্যানের কাছে আবেদন করতে হয়। চেয়ারম্যানের কাছে আবেদন করতে হলে একটি দরখাস্ত লিখতে হবে। এজন্য, চেয়ারম্যানের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম জানতে হবে।

নিচে উল্লেখ করে দেয়া চেয়ারম্যানের কাছে দরখাস্ত লেখার নিয়ম এবং নমুনাটি অনুসরণ করে অনেক সহজেই একটি দরখাস্ত লিখতে পারবেন।

০১ মে, ২০২৪
বরাবর 
চেয়্যারম্যান 
ইকোরচালি ইউনিয়ন পরিষদ
ইকরচালি, রংপুর সদর, রংপুর

বিষয়: টিউবওয়েল সংস্থাপনের জন্য আবেদন।

জনাব,
সবিনয় নিবেদন এই যে, আমি আপনার দায়িত্বরত ইকরচালি ইউনিয়ন পরিষদের অন্তর্ভুক্ত৯ নং ওয়ার্ডের কিশামত হরকলি গ্রামের মধ্যপাড়ার একজন বাসিন্দা। বিগত কয়েকমাস যাবত আমাদের এলাকায় বিশুদ্ধ পানির অনেক সংকট দেখা দিয়েছে। খাওয়া এবং ব্যবহার করার জন্য অনেকেই পুকুর এবং খালের পানি ব্যবহার করছে। একারণে, এলাকার অধিকাংশ মানুষ পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত হয়েছে।

অতএব, মহোদয়ের নিকট আকুল আবেদন এই যে, আমাদের এলাকায় নিরাপদ পানির ব্যবস্থা করতে আর্সেনিকমুক্ত দুইটি টিউবওয়েল সংস্থাপনের ব্যবস্থা করলে আপনার মর্জি হয়।

নিবেদক-
মো: ফারহান ইসরাক
গ্রাম: কিশামত হরকলি
ওয়ার্ড নং: ০৯

এভাবে করে যেকোনো প্রয়োজনে চেয়ারম্যানের নিকট আবেদন পত্র লিখে জমা দিতে পারবেন। আবেদন পত্র জমা দিলে চেয়ারম্যান আপনার প্রয়োজনের বিষয়টি খতিয়ে দেখে আবেদন অনুমোদন করবেন।

দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবি

দরখাস্ত লেখার কয়েকটি নিয়ম এবং নমুনা ইতোমধ্যে উপরে উল্লেখ করে দিয়েছি। অনেকেই দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবি আকারে চেয়ে থাকেন। আপনাদের জন্য নিচে দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবি আকারে সংযুক্ত করে দেয়া হল।

দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবি সহ
দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবি সহ
দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবিসহ
দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবিসহ
দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবি
দরখাস্ত লেখার নিয়ম ছবি

এখানে সংযুক্ত আবেদন পত্র লেখার নিয়ম এবং নমুনাগুলো অনুসরণ করে আপনার তথ্য দিয়ে অনেক সহজেই নিজেই যেকোনো ধরণের আবেদন পত্র লিখতে পারবেন।

ইতিকথা

আজকের এই ব্লগে আপনাদের সাথে আবেদন পত্র লেখার নিয়ম এবং নমুনা ও দরখাস্ত লেখার নিয়ম ও নমুনা শেয়ার করেছি। পোস্টটি শুরু থেকে শেষ অব্দি পড়লে বিভিন্ন প্রকার আবেদন পত্র লিখনের নিয়ম জানতে পারবেন।

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *